গোপন সূরার গোপন খবর:পর্ব-২য়


৭৪:৩০ "ইহার উপর ১৯।"


ক্রমিক নং                

পূর্ণ সংখ্যা

 দশমিক সংখ্যা

পুনরাবৃত্তি

কোরআনের যে জায়গায় সংখ্যা উল্লেখ রয়েছে


৪ বার

২:২৯, ২:২৬১, ১২:৪৩, ১২:৪৩, ১২:৪৩ ,১২:৪৬ , ১২:৪৬, ১২:৪৬ , ১২:৪৭, ১২:৪৮, ২৩:১৭, ৪১:১২, ৬৫:১২, ৬৭:৩, ৬৯:৭, ৭১:১৫, ১৭:৪৪, ২৩:৮৬, ১৫:৮৭, ৭৮:১২, ২:১৯৬, ১৫:৪৪, ১৮:২২, ৩১:২৭

৪০


৪ বার

২:৫১,  ৫:২৬,  ৭:১৪২,  ৪৬:১৫

১২


৫ বার

 ৫:১২, ২:৬০, ৭:১৬০, ৭:১৬০, ৯:৩৬


৪৫বার

২:৬১, ২:৯৬, ২:১০২, ২:১০২, ২:১৩৩, ২:১৩৬, ২:১৬৩, ২:১৮০, ২:২১৩, ২:২৬৬, ২:২৮২, ২:২৮২, ২:২৮৫, ৩:৭৩, ৩:৮৪, ৩:৯১, ৩:১৫৩, ৪:১, ৪:৩, ৪:১১, ৪:১১, ৪:১২, ৪:১৮, ৪:২০, ৪:৪৩, ৪:১০২, ৪:১৫২, ৪:১৭১, ৫:৬, ৫:২০, ৫:২৭, ৫:৪৮, ৫:৭৩, ৫:১০৬, ৫:১১৫, ৬:১৯, ৬:৬১, ৬:৯৮, ৭:৮০, ৭:১৮৯, ৮:৭, ৯:৪, ৯:৬, ৯:৩১, ৯:৫২, ৯:৮৪, ৯:১২৭, ১০:১৯, ১১:৮১, ১১:১১৮, ১২:৩১, ১২:৩৬, ১২:৩৯, ১২:৪১, ১২:৬৭, ১২:৭৮, ১৩:৪, ১৩:১৬, ১৪:৪৮, ১৪:৫২, ১৫:৬৫, ১৬:২২, ১৬:৫১,১৬:৫৮, ১৬:৭৬, ১৬:৯৩, ১৭:২৩, ১৮:১৯, ১৮:১৯, ১৮:২২, ১৮:২৬, ১৮:৩২, ১৮:৩৮, ১৮:৪২, ১৮:৪৭, ১৮:৪৯, ১৮:১১০, ১৮:১১০, ১৯:২৬,১৯:৯৮, ২১:৯২, ২১:১০৮, ২২:৩৪, ২৩:৫২, ২৩:৯৯, ২৪:২, ২৪:৬, ২৪:২১, ২৪:২৮, ২৫:১৪, ২৫:৩২, ২৮:২৫, ২৮:২৬, ২৮:২৭, ২৯:২৮, ২৯:৪৬, ৩১:২৮, ৩৩:৩২, ৩৩:৩৯, ৩৩:৪০, ৩৪:৪৬, ৩৫:৪১, ৩৫:৪২, ৩৬:২৯, ৩৬:৪৯, ৩৬:৫৩, ৩৭:৪, ৩৭:১৯, ৩৮:৫, ৩৮:১৫, ৩৮:২৩, ৩৮:৩৫, ৩৮:৬৫, ৩৯:৪, ৩৯:৬, ৪০:১৬, ৪১:৬, ৪২:৮, ৪৩:১৭, ৪৩:৩৩, ৪৯:৯, ৪৯:১২, ৫৪:২৪, ৫৪:৩১, ৫৪:৫০, ৫৯:১১, ৬৩:১০, ৬৯:১৩,৬৯:১৪, ৬৯:৪৭, ৭২:২, ৭২:৭, ৭২:১৮, ৭২:২০, ৭২:২২, ৭২:২৬, ৭৪:৩৫, ৭৯:১৩, ৮৯:২৫, ৮৯:২৬, ৯০:৫, ৯০:৭, ৯২:১৯, ১১২:১, ১১২:৪

১০০০


৮ বার

২:৯৬, ৮:৯,  ৮:৬৫, ৮:৬৬ , ২২:৪৭,  ২৯:১৪, ৩২:৫, ৯৭:৩


১৭ বার

১৯:১০,২৪:৫৮, ২৪:৫৮,৩৯:৬, ৭৭:৩০, ২:১৯৬, ২:২২৮, ৩:৪১,

৪:১৭১: ৫:৭৩, ৫:৮৯, ১১:৬৫, ১৮:২২, ৫৬:৭, ৫৮:৭, ৬৫:৪, ৯:১১৮

১০


৯ বার

২:১৯৬, ৫:৮৯, ৬:১৬০, ৭:১৪২, ১১:১৩, ৮৯:২, ২:২৩৪, ২০:১০৩, ২৮:২৭


১২ বার

২:২২৬, ২:২৩৪, ২:২৬০, ৪:১৫, ৯:২, ৯:৩৬, ২৪:৪, ২৪:১৩, ৪১:১০, ২৪:৬, ২৪:৮, ২৪:৪৫

১০০


৬ বার

 ২:২৫৯, ২:২৫৯,  ২:২৬১ , ৮:৬৫, ৮:৬৬, ২৪:২

১০

৩০০০


১ বার

৩:১২৪

১১

৫০০০


১ বার

৩:১২৫

১২


১৫ বার

৫:১০৬, ৬:১৪৩, ৬:১৪৩, ৬:১৪৪, ৬:১৪৪, ৯:৪০, ১১:৪০, ১৩:৩, ১৬:৫১, ২৩:২৭, ৩৬:১৪, ৪:১১, ৪:১৭৬, ৪০:১১, ৪০:১১

১৩

 

৫ বার

২৮:২৭, ৬:১৪৩, ৩৯:৬, ৬৯:৭, ৬৯:১৭

১৪


৭ বার

৭:৫৪, ১০:৩, ১১:৭, ২৫:৫৯, ৩২:৪, ৫০:৩৮, ৫৭:৪

১৫

৭০


৩ বার

৬৯:৩২, ৭:১৫৫, ৯:৮০

১৬

৩০


২ বার

৭:১৪২, ৪৬:১৫

১৭

২০


১ বার

৮:৬৫

১৮

২০০


২ বার

৮:৬৫, ৮:৬৬

১৯

২০০০


১ বার

৮:৬৬

২০

১১


১ বার

১২:৪

২১


৪ বার

১৭:১০১, ১৮:২৫, ২৭:১২, ২৭:৪৮

২২


২ বার

১৮:২২, ৫৮:৭

২৩

৩০০


১ বার

১৮:২৫

২৪


১ বার

২৪:৪

২৫

৫০


১ বার

২৯:১৪

২৬

১০০,০০০


১ বার

৩৭:১৪৭ 

২৭

৯৯


১ বার

৩৮:২৩

২৮

৬০


১ বার

৫৮:৪ 

২৯

৫০,০০০


১ বার

৭০:৪

৩০

১৯


১ বার

৭৪:৩০ 

৩১


১/১০

১ বার

৩৪:৪৫

৩২


১/৮

১ বার

৪:১২

৩৩


১/৬

৩ বার

৪:১১, ৪:১১, ৪:১২

৩৪


১/৫

১ বার

৮:৪১

৩৫


১/৪

২ বার

৪:১২, ৪:১২

৩৬


১/৩

৩ বার

৪:১১, ৪:১২, ৭৩:২০

৩৭


১/২

৭ বার

২:২৩৭, ৪:১১, ৪:১২, ৪:২৫, ৪:১৭৬, ৭৩:৩, ৭৩:২০

৩৮


২/৩

৩ বার

৪:১১, ৪:১৭৬, ৭৩:২০


=১৬২১৪৬

=২৮১/১২০

=৩০৪



৩৮(১৯*২)


(১৯*৮৫৩)


২.৩৪১৬


(১৯*১৬)





১) কোরআনে মোট ৩০টি পূর্ণ সংখ্যার উল্লেখ রয়েছে। আর ৩০ হচ্ছে ১৯ তম নন্ প্রাইম নাম্বার। (৪, ৬, ৮, ৯, ১০, ১২, ১৪, ১৫, ১৬, ১৮, ২০, ২১, ২২, ২৪, ২৫, ২৬, ২৭, ২৮, ৩০)

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


২) ৩০টি পূর্ণ সংখ্যার মোট যোগফল=  ৭+৪০+১২+১+১০০০+৩+১০+৪+১০০+৩০০০+৫০০০+২+৮+৬+৩০+৭০+২০+২০০+২০০০+১১+৯+৫+৩০০+০+৫০+১০০,০০০+৯৯+৬০+৫০,০০০+১৯ = ১৬২১৪৬ সংখ্যাটি ১৯ দ্বারা বিভাজ্য (১৯*৮৫৩৪=১৬২১৪৬)।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


৩) কোরআনে মোট সংখ্যা আছে - পূর্ণ সংখ্যা  ৩০টি  + দশমিক সংখ্যা ৮টি= ৩৮টি (১৯*২)।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


৪) কোরআনে মোট সংখ্যাগুলো পুনরাবৃত্তি হয়েছে- ৩০৪ বার (১৯*১৬)

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


৫) নাজিল অনুসারে কোরআনের,

১ম সুরা:  আল-আলাক-এ সুরায় কোন সংখ্যা উল্লেখ নেই।

২য় সুরা: আল-কালাম-এ সুরায় কোন সংখ্যা উল্লেখ নেই।

৩য় সুরা: আল-মুযযাম্মিল-এ সুরায় কোন সংখ্যা উল্লেখ নেই।

৪র্থ সুরা:আল-সুরা মুদ্দাসসির-এ সুরায় ১৯ সংখ্যাটি উল্লেখ রয়েছে।

সুতরাং ১৯ সংখ্যাটি প্রথম নাজিলকৃত সংখ্যা।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!



৬) কোরআনের শেষ সুরা থেকে ১৯তম সুরা গননা করলে সুরা আল-আলাক পাই যা কোরআনে নাাযিলকৃত ১ম সুরা।

     

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!



৭) কোরআনে মোট ১১৪ টি সূরা আছে। লক্ষনীয় ১৯*৬=১১৪।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!



৮)

 ১। সুরা ফাতিহা

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২। সুরা বাকারা

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

.....

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

......

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

৮। সুরা আনফাল

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

৯।  সুরা তাওবা


১০। সুরা ইউনুস

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১১। সুরা হুদ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১২। সুরা ইউসুফ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৩। সুরা রা’দ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৪। সুরা ইবরাহীম

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৫। সুরা হিজর

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৬। সুরা নাহল

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৭। সুরা বন ইসরাঈলী

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৮। সুরা কা’হফ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১৯। সুরা মারঈয়াম

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২০। সুরা ত্বা-হা

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২১। সুরা আম্বিয়া

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২২। সুরা হাজ্জ্ব

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২৩। সুরা মু’মিনুন

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২৪। সুরা নুর

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২৫। সুরা ফুরকান

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২৬। সুরা শু’য়ারা

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

২৭। সুরা নাম’ল

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম, বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম (৩০ নং আয়াত)

২৮। সুরা কাসাস

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

......

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

......

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১১৩। সুরা ফালাক

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

১১৪। সুরা নাস

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম


সুরা  তওবা “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” দিয়ে শুরু হয় নি।

অন্যদিকে সূরা নামলে এই “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” বাক্যটি ২ বার এসেছে।

ফলে সমগ্র কোরআনে বাক্যটির মোট রিপিটেসন ১১৪ হয়েছে। যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য। ১৯*৬=১১৪। 

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


৯) সুরা তওবা থেকে সূরা নামল পর্যন্ত মোট সূরা সংখ্যা ১৯।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!



১০) সূরা নামল কোরআনের ২৭ নং সূরা। শুধুমাত্র এই সুরাতেই ২বার “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” বাক্যটি এসেছে।

এই সূরার শুরুতে একবার এবং আর অতিরিক্ত “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” বাক্যটি এসেছে ৩০ নং আয়াতে ।

৩০ তম সংখ্যাটি ১৯ তম নন প্রাইম সংখ্যা(৪,৬,৮,৯,১০,১২,১৪,১৫,১৬,১৮,২০,২১,২২,২৪,২৫,২৬,২৭,২৮,৩০)।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!




১১) প্রথমে “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” আছে ১১৩ টি সূরাতে। ১১৩ সংখ্যাটি অংকের ৩০ তম প্রাইম নাম্বার। যদি আমরা যোগ করি সূরা নামলের ক্রমিক নং (২৭) এবং রিপিট হওয়া “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” এর আয়াত নাম্বার (৩০), তাহলে যোগফল হবে ৫৭ ! যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য।

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!



১২) ৯ নং সূরা (সূরা তওবা) তে “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম” নাই। ২৭ নং সূরাতে আছে দুই বার।

যদি আমরা যোগ করি ৯ নং থেকে ২৭ নং সূরা পর্যন্ত, সূরার ক্রমিক নং গুলো (৯+১০+১১+১২+১৩+১৪+১৫+১৬+১৭+১৮+১৯+২০+২১+২২+২৩+২৪+২৫+২৬+২৭) তাহলে যোগফল পাব ৩৪২।  ৩২৪ সংখ্যাটি ১৯ দ্বারা বিভাজ্য। ১৯*১৮=৩২৪

রহস্যটা যদি এখানেই শেষ হয়ে যেতো!


Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Easy EPub and documentation editor