মুসলিম অধ্যুষিত অঞ্চল গুলোতেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকম্প

Parent Previous Next

আল্লাহ কেন মুসলিম অধ্যুষিত অঞ্চল গুলোতেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকম্প গুলো ঘটিয়ে থাকেন ? যদি এটা তাদের বিশ্বাসের পরিক্ষা নেওয়াই হয়ে থাকে, তবে এর ফলে যে নিরীহ মহিলা ও বাচ্চাগুলো মারা যাচ্ছে সেটা কি বৈষম্যের পর্যায়ে পড়ে না ?(Out of the 10 most deadly earthquakes in the last 50 years, 6 of the 8 countries affected were populated by a Muslim majority. Peter Hough – Understanding Global Security)


জবাব :

প্রথমত, গত একশ বছরে সবচেয়ে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, এরকম টপ ১০টি ভুমিকম্পের মাত্র একটা মুসলিম এলাকায়ঃ


Top 30 earthquakes in the World:


ZONE MAGNITUDE YEAR

CHILE 9.5 1960

ALASKA 9.2 1964

SUMATRA 9.1 2004

JAPAN 9.0 2011

RUSSIA 9.0 1952

CHILE 9.0 1868

CHILE 8.8 2010

ECUADOR 8.8 1906

COLOMBIA 8.8 1906

PORTUGAL 8.7 1755

http://www.world-earthquakes.com/index.php?option=ethq_statistics


জাপান কোন মুসলিম দেশ নয়। সবচেয়ে বেশি ভূমিকম্প হয় জাপানে।


Seismic world activity for earthquakes with M6.5+ magnitude:


ZONE AVERAGE MAGNITUDE SEISMIC PERCENTAGE ACTIVITY

JAPAN 7.12 9.5989 % VERY HIGH

INDONESIA 7.13 6.7335 % HIGH

CHILE 7.56 5.1576 % AVERAGE

TURKEY 7.01 5.1576 % AVERAGE

MEXICO 7.28 4.2980 % AVERAGE

PAPUA NEW GUINEA 6.96 4.1547 % AVERAGE

CHINA 7.39 3.4384 % LOW

ALASKA 7.70 3.1519 % LOW

PERU 7.52 3.1519 % LOW

CALIFORNIA 7.04 3.0086 % LOW


পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ১০টি ভূমিকম্প প্রবণ জায়গাগুলোর মধ্যে মাত্র ২টি মুসলমান দেশ বলা যেতে পারে।


দ্বিতীয়ত, যেখানেই টেক্টনিক প্লেটের সংঘর্ষ হয়, সেখানেই ভুমিকম্প হয় । সেখানে মুসলমান থাকুক আর হিন্দুরাই থাকুক, কিছুই যায় আসে না। আজকে যদি সব মুসলমান সেখান থেকে সরে যায় এবং হিন্দুরা গিয়ে সেখানে থাকা শুরু করে, তখন ভুমিকম্পটাও সেখান থেকে সরে যাবে না। আল্লাহ তাঁর বানানো মহাবিশ্বের নিয়ম, পদার্থ বিজ্ঞানের আইন নিজেই নির্ধারণ করে সেটা নিজেই সবসময় ভাঙবেন, সেটা কেমন ন্যায়পরায়ণ সৃষ্টি কর্তার নিদর্শন হল?


তৃতীয়ত, তিনি যদি মুসলিম দেশগুলোকে সবরকম প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে বাঁচিয়ে রাখতেন তাহলে কারও কোন সন্দেহ থাকতো না আল্লাহর সম্পর্কে। এরকম পরিস্কার নিদর্শন মানুষকে দিলে মানুষের আর বিশ্বাস করার কোন প্রয়োজন পড়ে না এবং মানুষকে পরিক্ষা করার প্রয়োজন সেখানেই শেষ হয়ে যেত। পৃথিবী তৈরি করার উদ্দেশ্য হল মানুষকে পরিক্ষা করা।

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Easy to use tool to create HTML Help files and Help web sites