মোহাম্মদই হলো আল্লাহ ৬:১০৪

Parent Previous Next

তোমাদের কাছে তোমাদের পালনকর্তার পক্ষ থেকে নিদর্শনাবলী এসে গেছে। অতএব, যে প্রত্যক্ষ করবে, সে নিজেরই উপকার করবে এবং যে অন্ধ হবে, সে নিজেরই ক্ষতি করবে। আমি তোমাদের পর্যবেক্ষক নই।৬:১০৪


এখানে আমি মানুষটা কে? এটা মুহাম্মদের কথা নয়? মোহাম্মদই হলো আল্লাহ ।


জবাব :

এটা জানতে হলে পুরো কোরান কি স্টাইলে লেখা হয়েছে সেটা জানা প্রয়োজন। সাধারন জ্ঞানে যেটা বুঝি পুরো কোরানটাই আল্লাহর বাণী হলে ও আল্লাহ নিজে মুখে এটা মানুষকে শোনান নি , বরং এটা সেই আমলের মানুষ রসূলের মুখ থেকেই শুনেছে বা বলতে পারেন পুরো কোরানটাই রসূলের মুখ নিঃসৃত বাণী। এখন বিবেচ্য হলো এটা কি রসূলের নিজের কথা নাকি আল্লাহর বাণী? আগেই বলেছি সেটা বুঝতে আপনার নিজেকেই কোরান পড়ে বুঝতে হবে ও অনুধাবন করা লাগবে এটা কার বাণী। একারনেই কোরান নিয়ে চিন্তা ভাবনা করার কথা কোরানেই বলা আছে।


কোরান পড়লে আমরা দেখতে পাই ক্ষনে ক্ষনে বক্তা বদলাচ্ছে। কখনো বক্তা আল্লাহ স্বয়ং , কখনো এক আবার কখনো একাধিক ফেরেশতা , আবার কখনো রসূল স্বয়ং। ফলে বক্তা অনুসারে আল্লাহ কখনো আমি , কখনো আমরা , আবার কখনো তিনি। ৬:১০৪ আয়াতের আগের আয়াতগুলো দেখুন যেখানে আল্লাহ 'তিনি'। তেমনি কোরানে যাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলা হয়েছে তাদের পরিচয় ও বদলেছে।

যেমন কখনো রসূলের উদ্দশ্যে ,কখনো মুমিনদের , কখনো অবিশ্বাসীদের আবার কখনো সমগ্র মানবজাতির উদ্দশ্যে বলা হয়েছে। একে বলা হয় ইলতিফাত। এটা বালাগার একটি অংশ। এটা নিয়ে রসূলের সময় থেকেই আলোচনা সমালোচনা হয়ে আসছে , আপনি বা আকাশ মালিক প্রথম ব্যাক্তি নন যারা এ প্রশ্নটি করেছে।


To begin with: Iltifat means to 'turn/turn one's face to'. It is an important part of balagah (Arabic rhetoric) where there is a sudden shift in the pronoun of the speaker or the person spoken about. Muslim literary critics over the centuries have greatly admired this technique. Iltifat has been called by rhetoricians shaja'at al-arabiyya as it shows, in their opinion, the daring nature of the Arabic language. If any 'daring' is to be attached to it, it should above all be the daring of the language of the Qur'an since it employs this feature far more extensively and in more variations than does Arabic poetry. Most of the authors who talk about iltifat use the examples from the Qur'an. No one seems to quote references in prose other than from the Qur'an: and indeed a sampling of hadith material found not a single instance.


The types of iltifat Newton and related features are of following types:

1) Changes in person, between 1st, 2nd and 3rd person, which is the most common and is usually divided into six kinds. The four important examples that are found in the Qur'an are:


- Transition from the 3rd to 1st person. This is the most common type. Over 140 instances can be found in the Qur'an.

- From 1st to 3rd person - nearly 100 such instances can be found in the Qur'an.

- From 3rd to 2nd person - nearly 60 instances.

- From 2nd to 3rd person - under 30 instances.


2) Change in the number, between singular, dual and plural.

3) Change in the addressee.

4) Change in the tense of the verb.

5) Change in the case marker.

6) Using noun in the place of pronoun. [1]

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Full-featured EBook editor