বেহেস্তে

Parent Previous Next

দুনিয়াতে মদ হারাম অথচ বেহেস্তে তা হালাল , সেটা কেন ?


জবাব:

৪৭:১৫ পরহেযগারদেরকে যে জান্নাতের ওয়াদা দেয়া হয়েছে, তার অবস্থা নিম্নরূপঃ তাতে আছে পানির নহর, নির্মল দুধের নহর যারা স্বাদ অপরিবর্তনীয়, পানকারীদের জন্যে সুস্বাদু শরাবের নহর এবং পরিশোধিত মধুর নহর। তথায় তাদের জন্যে আছে রকমারি ফল-মূল ও তাদের পালনকর্তার ক্ষমা। পরহেযগাররা কি তাদের সমান, যারা জাহান্নামে অনন্তকাল থাকবে এবং যাদেরকে পান করতে দেয়া হবে ফুটন্ত পানি অতঃপর তা তাদের নাড়িভূঁড়ি ছিন্ন বিচ্ছিন্ন করে দেবে?

বেহেস্তের মদ সুস্বাদু , একারনেই মনে হয় হালাল।



বেহেস্তে কি বেহেস্তবাসীরা পায়খানা প্রস্রাব করবে ? শুনেছি করবে না , তাহলে এত যে খানা খাদ্য খাবে সেটা যাবে কোথায় ?


জবাব:

বেহেস্তের খাবার দাবার সব পরিশোধিত , পুরোটাই হজম হয়ে  শক্তিতে রুপান্তরিত হবে। ফলে পায়খানা প্রস্রাবের প্রয়োজন হবে না।




দুনিয়াতে একটা স্ত্রীই ম্যানেজ করা কঠিন , বেহেস্তে নাকি ৭২ টা হুর পাবে একজন পুরুষ, এত হুর সামাল দেবে কেমনে ?


জবাব:

শুনেছি বেহেস্তে কোন ইচ্ছা অপূর্ণ থাকবে না। অনেকের জন্য ৭২ হুর ও যথেষ্ঠ মনে নাও হতে পারে , সেক্ষেত্রে আরো বেশি হুর সে পেতেই পারে।  আপনার যদি ক্ষমতা না থাকে বা সেক্সে অরুচি থাকে , তাহলে হুর নিয়েন না , কেউ তো জবরদস্তী করছে না।



এক হাদিসে দেখেছি একজন বেহেস্তবাসী নাকি ৬০ কিউবিট তথা ৯০ ফুট দীর্ঘ হবে , তাহলে একটা হুরের সাইজ কেমন হবে ?


জবাব:

হুরের সাইজ যার যার পছন্দমতো হবে।


বেহেস্তে একজন বেহেস্ত বাসীর কামকাজটা কি ? শুধু কি হুরদের সাথে ফুর্তি করা ? তাই যদি হয় , ক্লান্তি লাগবে না কখনো ?

আমরা ধর্ম কর্ম পালন করব কি খালি যৌন আনন্দ করার জন্য ? বিষয়টা শুনতে কেমন জানি লাগে না ?


জবাব:

যৌণ আনন্দ করতে মন না চাইলে জাহান্নামে যেয়ে ফুটন্ত পানি পান করতে পারেন।

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Free help authoring environment