উইকিপিডিয়া তাহলে কি নাস্তিকদের মানুষিক ভারসাম্যহীন বলল?

সুইসাইড প্রবনতা
১) নাস্তিক:: সব চেয়ে বেশি
২) আস্তিক:: সবচেয়ে কম
৩) ধার্মিক:: প্রবনতা নাই বললেই চলে।

আত্মহত্যা বা আত্মহনন (ইংরেজি ভাষায়: Suicide) হচ্ছে একজন নর কিংবা নারী কর্তৃক ইচ্ছাকৃতভাবে নিজের জীবন বিসর্জন দেয়া বা স্বেচ্ছায় নিজের প্রাণনাশের প্রক্রিয়াবিশেষ।

আত্মহত্যার কারন
নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও গবেষণার মাধ্যমে দেখা যায় যে, মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে ৮৭% থেকে ৯৮% আত্মহত্যাকর্ম সংঘটিত হয়। এছাড়াও, আত্মহত্যাজনিত ঝুঁকির মধ্যে অন্যান্য বিষয়াদিও আন্তঃসম্পৃক্ত। তন্মধ্যে -
১) নেশায় আসক্তি
২)জীবনের উদ্দেশ্য খুঁজে না পাওয়া
৩) দারিদ্রতা(যদি এটা সরাসরি কোন কারন নয়।কিন্তু এর কারনেও মাঝে মাঝে হয়
৪)হতাশা

এবার আমরা দেখব কিছু গিবেষনা পেপার::
*********
আমেরিকার এক গবেষনায় দেখা গেছে যাদের ধর্মের মধ্যে অন্তর্ভুক্তি নেই তারাই সুইসাইডের দিকে বেশি ঝুকে।

According to a recent study published in The American Journal of Psychiatry religious affiliation is associated with significantly lower levels of suicide compared to religiously unaffiliated people, atheists and agnostics. Source: Kanita Dervic, Maria A. Oquendo, Michael F. Grunebaum, Steve Ellis, Ainsley K. Burke, and J. John Mann. "Religious Affiliation and Suicide Attempt"

তারা তাদের গবেষনা শেষে যে রেজাল্ট দিয়েছে সেখানে বলা আছে
Religiously unaffiliated subjects had significantly more lifetime suicide attempts

যারা ধর্মের সাথে সংযুক্ত থাকেনা তারা সব চেয়ে বেশি সুইসাইড এটেম্পট নেয়।

*********
আরো একটি গবেষনার ফলাফল
পিটজার কলেজ সাইকোলোজিস্ট ফিল জুকার ম্যান বিভিন্ন দেশের মধ্যে সার্ভে করেন,এবং দেখেন যে নাস্তিক, শংসয়বাদি অথবা যারা ঘোষনা দেয় যে সৃষ্টি কর্তা বলে কিছু নাই তাদের মধ্যে সুইসাইড প্রববতা অত্যাধিক।এই ডাটা পাবেন
the chapter titled "Atheism: Contemporary Rates and Patterns" in The Cambridge Companion to Atheism, ed. by Michael Martin, Cambridge University Press: Cambridge, UK .

জুকার ম্যান তার গবেষনা শেষে যেভাবে কনক্লুষন টানেন সেটা নিচে দেওয়া হল---

Concerning suicide rates, this is the one indicator of societal health in which religious nations fare much better than secular nations. According to the World Health Organization's report on international male suicides rates (which compared 100 countries), of the top ten nations with the highest male suicide rates, all but one (Sri Lanka) are strongly irreligious nations with high levels of atheism. It is interesting to note, however, that of the top remaining nine nations leading the world in male suicide rates, all are former Soviet/Communist nations, such as Belarus, Ukraine, and Latvia. Of the bottom ten nations with the lowest male suicide rates, all are highly religious nations with statistically insignificant levels of organic atheism.

বাংলা করলে বলা যায়
সুইসাইড রেটের দিক থেকে ধার্মিক দেশ গুলো খুব ভাল অবস্থানে আছে ধর্মহীন দের তুলনায়।
ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন এর মতে টপ ১০০ টি দেশের মধ্যে অধার্মিক দেশ শ্রিলংলাকে পুরুষ সুইসাইডের সংখ্যা সর্বাধিক।এর বাইরেও টপ দশ টি দেশের মধ্যে আছে কমিউনিস্টরা,যেমন বেলারাস, উক্রেইন, লাতভিয়া

আর সব শেষের দশ দেশে আছে highly religious nations(খুব বেশি ধার্মিক দেশ)যেখানে হালকা কিছু নাস্তিক থাকে।

জুকার ম্যান একটা লিস্ট করেছিলেন সুইসাইড অধ্যষিত দেশের, যার শুরুতে যে দেশ গুলো আছে,সেগুলো হল--
Sweden, Vietnam, Denmark, Norway, Japan, Czech Republic, Finland, France, South Korea, Estonia, Germany, Russia, Hungary, Netherlands, Britain and Belgium (এগুলো সব গুলোই নাস্তিক অধ্যষিত)

********
আরো একটি গবেষনার রেজাল্ট
the American Journal of Epidemiology published a study by Dr. Sterling C. Hilton showing that active Latter-day Saints are 7 times less likely to commit suicide. (See: "High Religious Commitment Linked to Less Suicide"

এখানেও বলা হচ্ছে যারা ধার্মিক তাদের ৭ গুন কম সুইসাইড প্রবনতা।

তাহলে আমরা এই গবেষনা পত্র থেকে এটা সহজেই বুঝতে পারছি যারা জীবনের উদ্দেশ্য খুজে পায়না, তারাই সুইসাইড বেশি করে।

সবার উপরে সুইসাইডের সংগাটি নেওয়া হয়েছে উইকিপিডিয়া থেকে, সেখানে বলা আছে মানুষিক ভারসাম্যহীন্দের মধ্যে সুইসাইড রেট বেশি,আবার বিভিন্ন গবেষনা থেমে আমরা দেখলাম নাস্তিক দের মধ্যেও সুইসাইড রেট বেশি।তাহলে কি উইকিপিডিয়া ইন্ডিরেক্টলি এটাই বুঝাইলো যে নাস্তিকরা ভারসাম্যহীন?

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Full-featured EBook editor