"নারীদের নিকাব? উফ্‌! ইসলাম একটি নারী-বিদ্বেষী ধর্ম!"


জবাব: 


১মত- মুসলিম হওয়ার জন্য নিকাব পরা কোনো শর্ত নয়।

২য়ত- কুরআন-হাদিসে নারীদেরকে নিকাব পরতে বলা হয়নি। এজন্য সারা বিশ্বের মুসলিম নারীদের অধিকাংশই নিকাব পরিধান করে না। তবে অধিকাংশ মুসলিম নারী শালীন পোশাক-সহ হিজাব/স্কার্ফ পরিধান করে।

৩য়ত- মুসলিম নারীদের ক্ষুদ্র একটা অংশ যেমন বোরকা-নিকাব পরিধান করে, তেমনি মুসলিম পুরুষদের ক্ষুদ্র একটা অংশ জোব্বা-স্কার্ফ পরিধান করে যা বোরকা-নিকাবের খুব কাছাকাছি। ছবিতে দেখুন। সেই দিক থেকে মুসলিম নারী-পুরুষের পোশাকে তেমন কোনো পার্থক্য নেই। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের নারী-পুরুষের পোশাকের ক্ষেত্রে পার্থক্যটা বেশ প্রকট!

৪র্থ- নিকাব একটি ইসলাম-পূর্ব যুগের প্রথা। মুসলিমরা যেহেতু অন্যান্য ধর্ম থেকে ধর্মান্তরিত হয়েছে সেহেতু তাদের একাংশের মধ্যে আগের প্রথা পালন করার প্রচলন রয়ে গেছে। উদাহরণস্বরূপ, হিন্দু নারীদের একাংশ আজও পর-পুরুষের সামনে গোমটা দিয়ে পুরো চেহারা ঢেকে রাখে। এই প্রথা তাদের বেদ থেকে এসেছে। স্থানীয় কালচারের প্রভাবে ভারতীয় উপমহাদেশের মুসলিম নারীদের মধ্যেও এই গোমটা প্রথা পালন করতে দেখা যায়।



Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Free Kindle producer