বিভিন্ন ধর্মের নাস্তিকদের অবদান নিয়ে তুলনামূলক আলোচনা:-

১. আইনস্টাইন ধর্মে বিশ্বাস করতেন না। তবে তিনি স্বঘোষিত নাস্তিক ছিলেন কি-না, সেটা নিয়ে বিভিন্ন মতামত থাকতে পারে। প্রচলিত অর্থে ধর্মে অবিশ্বাসীদেরকে নাস্তিক বলা হয়। সেই অর্থে ইহুদী পরিবারে জন্মগ্রহণ করে নাস্তিক হয়ে আইনস্টাইন সারা বিশ্বের মানুষের মনে ইতিহাসের অন্যতম একজন বিজ্ঞানী হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন। কাজের প্রতিদানস্বরূপ নোবেল পুরস্কারও পেয়েছেন। একইভাবে, কার্ল মার্ক্স ইহুদী পরিবারে জন্মগ্রহণ করে নাস্তিক হয়ে বিখ্যাত অর্থনীতিবীদ ও দার্শনিক হয়েছেন। সারা বিশ্বে আজ তাঁর মিলিয়ন মিলিয়ন ভক্ত-অনুসারী আছে। প্রকৃতপক্ষে, ইহুদী নামধারী বিখ্যাত বিজ্ঞানী, দার্শনিক ও নোবেল বিজয়ীদের প্রায় সকলেই নাস্তিক-নিধার্মিক। সেই নাস্তিক-নিধার্মিকরাই ইহুদী জাতিকে সর্বোচ্চ আসনে তুলে ধরেছেন। তার মানে ইহুদীদের সকলে যদি নাস্তিক-নিধার্মিক হয়ে যায় সেক্ষেত্রে মানবজাতি আরো কিছু বিজ্ঞানী-দার্শনিক পাবে।

২. খ্রিস্টান পরিবার থেকে যারা বিখ্যাত বিজ্ঞানী ও দার্শনিক হয়েছেন, নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন - তাদের মধ্যে আস্তিক-নাস্তিক-নিধার্মিক নির্বিশেষে কম-বেশি সকলেই আছে। তবে তাদের অধিকাংশই নাস্তিক-নিধার্মিক হবে। মূলত খ্রিস্টান পরিবারের নাস্তিক-নিধার্মিকরাই খ্রিস্টানদেরকে সুউচ্চ আসনে তুলে ধরেছেন। তার মানে খ্রিস্টানদের সকলে নাস্তিক-নিধার্মিক হয়ে গেলে, তা মানবজাতির জন্য খারাপের চেয়ে হয়তো ভালোই হবে।

৩. এ পর্যন্ত বিজ্ঞান ও অর্থনীতিতে মোট ছয়জন হিন্দু নামধারী নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন (C. V. Raman, Har Gobind Khorana, Subrahmanyan Chandrasekhar, Amartya Sen, Venkatraman Ramakrishnan, Abhijit Banerjee)। এই ছয়জনের মধ্যে কমপক্ষে দু'জন (Subrahmanyan Chandrasekhar ও Amartya Sen) স্বঘোষিত নাস্তিক। বাকি চারজন আস্তিক না নাস্তিক, সে সম্পর্কে কিছুই জানা যায় না। তবে তাদের ধর্মীয় বিশ্বাসের পক্ষেও ন্যূনতম কোনো প্রমাণ নেই। তারা হয় নাস্তিক না-হয় বড়জোর নিধার্মিক ছিলেন। হিন্দুদের মুখ উজ্জ্বল করার মতো যদি কিছু থেকে থাকে তাহলে সেগুলো মূলত হিন্দু নামধারী নাস্তিক-নিধার্মিকরাই করেছেন। এক্ষেত্রেও হিন্দুদের সকলে নাস্তিক-নিধার্মিক হয়ে গেলে সেটা বরং মানবজাতির জন্য আশীর্বাদই হবে।

তাহলে দেখা যাচ্ছে ইহুদী, খ্রিস্টান, ও হিন্দু পরিবার থেকে যারা বিখ্যাত বিজ্ঞানী ও দার্শনিক হয়েছেন, নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন - তারা মূলত নাস্তিক-নিধার্মিক। তারা নাস্তিক-নিধার্মিক হয়ে তাদের স্বজাতির মুখ উজ্জ্বল করেছেন, স্বজাতিকে গর্বিত করেছেন। এমনকি এই ধর্মগুলোর পরিবার থেকে স্বঘোষিত নাস্তিকদের একাংশ ইসলামকে আক্রমণ ও হেয় করে পরোক্ষভাবে স্বজাতির ধর্মকে জাতে তোলার চেষ্টা করে, সুযোগ বুঝে নিজ ধর্মকে একেবারে মহানও বানিয়ে দেয়। কাজেই অন্যান্য ধর্মীয় পরিবারের নাস্তিকদের নিয়ে সেইসব ধর্মে বিশ্বাসীদের তেমন কোনো সমস্যা থাকার কথা নয়। কেননা অন্যান্য ধর্মীয় পরিবারের নাস্তিক-নিধার্মিকরাই তাদের স্বজাতির মুখ উজ্জ্বল করেছে, স্বজাতিকে গর্বিত করেছে, ইসলামকে আক্রমণ করে স্বজাতির ধর্মকে জাতে তুলেছে। ইট'স আ ফ্যাক্ট।

এবার মুসলিম নামধারী মুক্তমনা নাস্তিকদের প্রসঙ্গে আসা যাক। তাদের কেউ কি আজ পর্যন্ত অন্তত একটি নোবেল পুরস্কার পেয়েছে? প্রশ্নই ওঠে না! তাদের কেউ কি মানবজাতির জন্য বিজ্ঞান বা প্রযুক্তি বা দর্শনে কোনো অবদান রেখেছে? মোটেও না! সর্বোপরি, তাদের কেউ কি মুসলিমদের মুখ উজ্জ্বল করার মতো আদৌ কিছু করেছে? একদমই না!

সত্যি বলতে, মুসলিম নামধারী আইসিস জঙ্গিদের মতো মুসলিম নামধারী মুক্তমনা নাস্তিকরাও ইসলাম, মুসলিম ও মানবতার জন্য কলঙ্ক ছাড়া ভালো কিছুই উপহার দিতে পারেনি। বরঞ্চ তাদের কেউ 'লজ্জা' উপহার দিয়েছে! কেউ 'দ্য স্যাটানিক ভার্সেস' উপহার দিয়েছে! কেউ 'নূরানী চাপা সমগ্র' নামে চটি সমগ্র উপহার দিয়েছে! কেউ 'ইসলামে কাম ও কামকেলি' নামে অর্ধ-চটি উপহার দিয়েছে! কেউ 'বিবর্তনের পথ ধরে' নামক কপিপেস্ট কল্পকাহিনী উপহার দিয়েছে! কেউ 'The Caged Virgin' ও 'Infidel: My Life' উপহার দিয়েছে! কেউবা আবার মহান মুক্তিযুদ্ধ, পাক হানাদার বাহিনী, রাজাকার, ও ইসলামকে এক সাথে গুলিয়ে ফেলে 'পাক সার জমিন সাদ বাদ' জাতীয় নোংরা-অখাদ্য উপহার দিয়েছে। এই তো! এগুলো ছাড়া মানবজাতির মঙ্গলের জন্য কিংবা নিদেনপক্ষে মুসলিমদের জন্য গর্ব করার মতো তারা আদৌ কিছু করতে পারেনি। তাহলে মুসলিমরা কোন্‌ যুক্তিতে এইসব কুলাঙ্গারদেরকে সমর্থন দেবে?

উপসংহার:
--অন্যান্য ধর্মে বিশ্বাসী হয়ে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার মতো বিজ্ঞানী পর্যায়ে সাধারণত কেউ যেতে পারে না। সেই পর্যায়ের বিজ্ঞানী হতে হলে নাস্তিক অথবা নিদেনপক্ষে অজ্ঞেয়বাদী। অন্যদিকে ইসলামে বিশ্বাসী হয়েই বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার মতো পর্যায়ে যাওয়া যায়। এ পর্যন্ত যে ১২ জন মুসলিম নামধারী নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তাদের সকলেই ইসলামে বিশ্বাসী। এটা প্রমাণিত সত্য। তাছাড়াও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যে সকল মুসলিম নামধারী বিজ্ঞানী, গণিতবিদ ও দার্শনিকের নাম উচ্চারিত হয় তাদেরও সকলে ইসলামে বিশ্বাসী। তাদের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার পক্ষে অবশ্য ভিডিও নাই!

--ইহুদী পরিবার থেকে নাস্তিক-ধর্মহীন হয়ে কেউ আইনস্টাইন (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ নিলস বোর (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ কার্ল মার্ক্স হয়, কেউ সিগমুন্ড ফ্রয়েড হয়, কেউ রিচার্ড ফাইনম্যান (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউবা আবার ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ হয়।

--খ্রিস্টান পরিবার থেকে নাস্তিক-ধর্মহীন হয়ে কেউ চার্লস ডারউইন হয়, কেউ আলফ্রেড নোবেল হয়, কেউ বার্ট্রান্ড রাসেল হয়, কেউ জেমস ওয়াটসন (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ স্টিফেন হকিং হয়, কেউ স্টিভেন ওয়াইনবার্গ (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ কেউ আবার ডকিন্স-হ্যারিসের মতো উচ্চ-শিক্ষিত ও বিজ্ঞানী হয়েও মূলত ইসলাম ও মুসলিমবিরোধী হয়।

--হিন্দু পরিবার থেকে নাস্তিক-ধর্মহীন হয়ে কেউ সুব্রহ্মণ্যন চন্দ্রশেখর (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ অমর্ত্য সেন (নোবেল বিজয়ী) হয়, কেউ জগদীশ চন্দ্র বসু (বিজ্ঞানী) হয়, কেউ সাভারকর (হিন্দুত্ববাদের জনক) হয়, কেউ কেউ আবার বিজ্ঞানের মোড়কে অভিজিৎ রায়ের মতো ইসলামবিদ্বেষী মিশন্যারী হয়।

--অন্যদিকে মুসলিম পরিবার থেকে মুক্তমনা নাস্তিক হয়ে কী হয়? অনেকে ইসলাম ও মুসলিমবিদ্বেষী জাম্বি হয়; অনেকে জায়নবাদী-ব্রাহ্মণবাদীদের দাস-দাসী হয়; ইহুদী-খ্রিস্টানদের জুতার তলা চেটে চেটে মুসলিমদের দিকে ঘৃণাভরে থুথু ছিটায়; ইসলাম ও ইসলামের নবীর যৌনজীবন নিয়ে গুবেষণা করে, বিদ্বেষমূলক মিথ্যাচার করে, চটি লিখে; ইত্যাদি; ইত্যাদি। কিন্তু কেউই নোবেল পুরস্কার পাওয়ার মতো বিজ্ঞানী হতে পারে না! এমনকি আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন দার্শনিক/কবি/সাহিত্যিক/মিউজিশ্যান/দাবারু/অ্যাথলিট/খেলোয়াড়ও হতে পারে না! তার মানে মুসলিমদের সকলে নাস্তিক হয়ে গেলে সারা বিশ্বে জায়নবাদী-ব্রাহ্মণবাদীদের অধীনস্ত দাস-দাসীদের সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যাবে!

মুসলিম নামধারী নাস্তিকরা যদি তাদের মধ্যে থেকে মাত্র একজন আইনস্টাইন বা রিচার্ড ফাইনম্যান বা কার্ল মার্ক্স বা মার্ক জাকারবার্গ অথবা স্টিফেন হকিং বা স্টিভেন ওয়াইনবার্গ বা বার্ট্রান্ড রাসেল কিংবা সুব্রহ্মণ্যন চন্দ্রশেখর বা নিদেনপক্ষে একজন অমর্ত্য সেনও উপহার দিতে পারে, সেক্ষেত্রে আমি সারা জীবন তাদের অধিকারের পক্ষে লিখে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করলাম। আচ্ছা, অতদূরও যেতে হবে না। তারা ন্যূনতম একজন রিচার্ড ডকিন্স উপহার দিতে পারলেও হবে! 😃

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Create help files for the Qt Help Framework