আল্লাহ কেন ডুমুরের শপথ নিলেন?


জবাব :


 ডুমুরের গুরুত্ব বিবেচনা করে আল্লাহ ডুমুরের নামে একটি সুরার নামকরণ করেন ,সুরা ত্বিন। সুরা ত্বিনে আল্লাহ ইরশাদ করেছেন—

1] وَالتّينِ وَالزَّيتونِ

[1] শপথ আঞ্জীর (ডুমুর) ও যয়তুনের,

[1] By the fig, and the olive,

(’ সুরা আত ত্বিন।)


ডুমুরের নামে শপথ করাতে নাস্তিকদের প্রশ্নবাণে অতিষ্ঠ হয়ে যেতে হচ্ছে ৷ তাদের প্রশ্ন হল, " কেন এত সাধারন বস্তুর নামে শপথ করলেন আল্লাহ তায়ালা "


আসুন দেখি কত অসাধারণ বস্তু এই ডুমুর!


ডুমুরঃ

ডুমুর (ইংরেজি: Fig  ) । মোরাসিয়ে গোত্রভূক্ত ৮৫০টিরও অধিক কাঠজাতীয় গাছের প্রজাতিবিশেষ। এ প্রজাতির গাছ, গুল্ম, লতা ইত্যাদি সম্মিলিতভাবে ডুমুর গাছ বা ডুমুর নামে পরিচিত।


ডুমুর নরম ও মিষ্টিজাতীয় ফল। ফলের আবরণ ভাগ খুবই পাতলা এবং এর অভ্যন্তরে অনেক ছোট ছোট বীজ রয়েছে। এর ফল শুকনো ও পাকা অবস্থায় ভক্ষণ করা যায়। উষ্ণ জলবায়ু অঞ্চলে এ প্রজাতির গাছ জন্মে। তবে বিশ্বের যে কোন পরিবেশে ডুমুর জন্মাতে পারে । পানি পূর্ন স্থান কিংবা মরুভূমিতে ও ডুমুর স্বাভাবিক ভাবে জন্মাতে পারে ৷


জৈব রাসায়নিক উপাদান:


ডুমুরে প্রচুর শর্করা ও বিভিন্ন বিজারক চিনি যেমন ফ্রুক্টোজ ও গ্লুকোজ পাওয়া যায়। এতে রয়েছে ভিটামিন A , ভিটামিন B ,ভিটামিন  B2, ভিটামিন C ,ক্যালসিয়াম,  আয়রন,   ফসফরাস,ম্যাঙ্গানিজ, সোডিয়াম,  পটাসিয়াম, এবং ক্লোরিন ৷

, এতে ৫০% পর্যন্ত মনোস্যাকারাইড ও অলিগো-স্যাকারাইড থাকে। এতে কিছু ফিউরানো কোমারিন যেমন সোরালিন ও বারগাপটিন পাওয়া যায়। ডুমুরে সাইট্রিক এসিড, ম্যালিক এসিডসহ কিছু জৈব এসিড থাকে।


বিঃদ্রঃ:  পৃথিবীতে মানুষের দ্বারা  প্রথম চাষ করা শষ্যও ডুমুর ৷


https://mobile.nytimes.com/2006/06/01/science/01cnd-fig.html


সম্প্রতি গবেষনায় প্রমানিত হয়েছে যে আজ হতে 11400 বছর পূর্বেও ডুমুরের চাষ হত ৷ এবং এটিই হল মানুষের দ্বারা প্রথম উৎপাদিত শষ্য ৷


https://en.m.wikipedia.org/wiki/Common_fig

এছাড়াও রয়েছে ডুমুরের  অসাধারণ ঔষধি গুন ৷


https://www.organicfacts.net/health-benefits/fruit/health-benefits-of-figs-or-anjeer.html


ডুমুর অত্যন্ত উপকারী ফল । গ্রামদেশে বিনা পয়সায় মেলে বলে এর কদর কম । তবে এর উপকারিতা সম্পর্কে জানা থাকলে একে অবহেলা করত না কেউ ।


এটি কোলন ক্যান্সার,ব্রেস্ট ক্যানসার,  করোনারি হৃদরোগ, হাইপারটেনশন, ব্রংকাইটিস, পিত্ত ও আমাশয় ,রক্তপিত্তা, রক্তপ্রদর, এবং রক্তপড়া  রোগের নিরাময়ে অত্যন্ত কার্যকর ৷


তাছাড়া মেয়েদের মাসিকের সময় বেশি রক্তস্রাব হলে কচি ডুমুরের রসের সঙ্গে সামান্য মধু মিশিয়ে খেলে উপকার হয় ৷ ডায়াবেটিস রোগে ডুমুর গাছের মূলের রস খুবই উপকারী ।


আরও বিভিন্ন  উপকারিতা রয়েছে- যেমন,

যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে ডুমুর কার্যকর ৷

প্রতিদিন ডুমুর সেবন কারলে শুক্রানু বৃদ্ধি ও যৌন শক্তি বৃদ্ধি পায়।


চর্মের বিবর্ণতা দূরীকরণে,শ্বেতীরোগ,পরিপাক শক্তি বৃদ্ধি, ফোঁড়া পাকাতে , ক্ষুধামন্দা , অপুষ্টিজনিত রোগেও ডুমুর অত্যন্ত কার্যকর ৷


এরপরও নাস্তিকরা ব্যাপক সমালোচনা করতেই থাকবে ৷ তাদের জন্যই আল্লাহ তায়ালা বলেছেন


26] ۞ إِنَّ اللَّهَ لا يَستَحيۦ أَن يَضرِبَ مَثَلًا ما بَعوضَةً فَما فَوقَها ۚ فَأَمَّا الَّذينَ ءامَنوا فَيَعلَمونَ أَنَّهُ الحَقُّ مِن رَبِّهِم ۖ وَأَمَّا الَّذينَ كَفَروا فَيَقولونَ ماذا أَرادَ اللَّهُ بِهٰذا مَثَلًا ۘ يُضِلُّ بِهِ كَثيرًا وَيَهدى بِهِ كَثيرًا ۚ وَما يُضِلُّ بِهِ إِلَّا الفٰسِقينَ

[26] আল্লাহ পাক নিঃসন্দেহে মশা বা তদুর্ধ্ব বস্তু দ্বারা উপমা পেশ করতে লজ্জাবোধ করেন না। বস্তুতঃ যারা মুমিন তারা নিশ্চিতভাবে বিশ্বাস করে যে, তাদের পালনকর্তা কর্তৃক উপস্থাপিত এ উপমা সম্পূর্ণ নির্ভূল ও সঠিক। আর যারা কাফের তারা বলে, এরূপ উপমা উপস্থাপনে আল্লাহর মতলবই বা কি ছিল। এ দ্বারা আল্লাহ তা’আলা অনেককে বিপথগামী করেন, আবার অনেককে সঠিক পথও প্রদর্শন করেন। তিনি অনুরূপ উপমা দ্বারা অসৎ ব্যক্তিবর্গ  ভিন্ন কাকেও বিপথগামী করেন না।( সূরা বাকারাহ)



Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Free help authoring tool