ছয় দিনে মহাবিশ্ব সৃষ্ট

Parent Previous Next

কোরআনে ছয় দিনে মহাবিশ্ব সৃষ্টির কথা লিখা আছে (৭:৫৪)। অথচ বিজ্ঞান অনুযায়ী এই মহাবিশ্ব সৃষ্টি হতে অনেক বেশী সময় লেগেছে। অতএব কোরআনের বক্তব্য অবৈজ্ঞানিক!


[SHAKIR]: Surely your Lord is God, Who created the heavens and the earth in six periods of time, and He is firm in power.


[ASAD]: VERILY, your Sustainer is God, Who has created the heavens and the earth in six aeons, and is established on the Throne of His almightiness.


[Malik]: Surely your Lord is God Who created the heavens and the earth in six Yõme (time periods) and is firmly established on the throne of authority.


[Maulana Ali]: Surely your Lord is God, Who created the heavens and the earth in six periods, and He is established on the Throne of Power.


জবাব:

বিশ্বসৃষ্টির বর্ণনা প্রসঙ্গে বাইবেলে বলা হয়েছে, স্রষ্টা ছয় দিনে বিশ্ব সৃষ্টি করেছেন এবং সপ্তম দিনে বিশ্রাম নিয়েছেন। এটাকে সাবাথ বা বিশ্রাম দিবস বলা হয়–ঠিক সাপ্তাহিক ছুটির দিনের মতো। এমনকি বাইবেলে সকাল-সন্ধ্যাও উল্লেখ আছে। ফলে কোরআনের কিছু কিছু অনুবাদক ক্রিস্টিয়ানদের সর্বত্র প্রচলিত ‘ছয় দিনে বিশ্বসৃষ্টি’ বিশ্বাসের সাথে মিল রেখে কোরআনের এই আয়াতগুলোর অনুবাদ করেছিলেন। কিন্তু অনেক স্কলারের মতে কোরআনে ব্যবহৃত অ্যারাবিক শব্দের প্রকৃত অর্থ হওয়া উচিত ‘স্টেজ’ বা ‘পিরিয়ড’ বা ‘কাল।’ যাহোক, বাইবেলের মতো কোরআনে যেহেতু সকাল-সন্ধ্যা তথা চব্বিশ ঘন্টায় দিন উল্লেখ নেই এবং ‘সপ্তম দিন’ কে যেহেতু গুরুত্ব সহকারে ‘বিশ্রাম দিবস’ উল্লেখ করা হয়নি সেহেতু ‘Six Stages’ অথবা ‘Six Periods’ মেনে নিতে কারো সমস্যা থাকার কথা নয়। কোরআনের এই আয়াতগুলোতে আসলে প্রচলিত অর্থে সপ্তাহের ‘ছয় দিন’ বুঝানো হয়নি, যেটি বাইবেলে বুঝানো হয়েছে। কারণ কোরআনে ‘সপ্তম দিন’ বা ‘বিশ্রাম দিন’ বলে কিছু নেই।

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Easy EPub and documentation editor