বিজ্ঞান শেখার জন্য কোরআন পড়ে

Parent Previous Next

এই আধুনিক বিজ্ঞানের যুগেও মুসলিমরা বিজ্ঞান শেখার জন্য কোরআন পড়ে! তারা কতটা পশ্চাৎগামী, দেখেছেন! লাইব্রেরীতে হাজার হাজার বিজ্ঞানের বই-পুস্তক ছেড়ে সপ্তম শতাব্দীতে লিখা একটি ধর্মগ্রন্থ থেকে বিজ্ঞান শিখতে হবে কেন বাবা! তারা জ্ঞান-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে যে কেন পিছিয়ে আছে সেটা বুঝার জন্য তসলিমা নাসরিন হওয়ার দরকার নাই নিশ্চয়!


জবাব:

মুসলিমরা বিজ্ঞান শেখার জন্য কোরআন পড়ে না বা কোরআন থেকে বিজ্ঞান শেখে না! তারা কোরআনকে এই মহাবিশ্বের সৃষ্টিকর্তার রেভিলেশন হিসেবে বিশ্বাস করে। ফলে তারা বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের সাথে কোরআনকে সমন্বয় করাতেই পারে। তাতে কারো গাত্রদাহ হলে করার কিছু নাই। কোরআনের মধ্যে বৈজ্ঞানিক তথ্য খোঁজা বা না খোঁজার সাথে মুসলিমদের জ্ঞান-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে পিছিয়ে পড়ারও কোন সম্পর্ক নেই। আর যদি কোন সম্পর্ক থেকেই থাকে তাহলে কোরআন তথা সত্য থেকে অনেকটাই বের হয়ে যাওয়ার কারণেই তারা পিছিয়ে পড়েছে। মুসলিম বিশ্বের মধ্যে ইরানিয়ান ও মালয়েশিয়ান’রা তুলনামূলকভাবে বেশী শিক্ষিত ও সচেতন ধার্মিক। তারাই মুসলিম বিশ্বের মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে এগিয়ে আছে। আর এ কারণেই মুসলিম বিশ্বের জ্ঞান-বিজ্ঞানের অতীত ঐতিহ্য স্পেন ও ইরাক ধ্বংসের পর পরবর্তী টার্গেট হচ্ছে ইরান। তারপর হয়তো মালয়েশিয়া। বুজলেন মিয়া ভাই!

Created with the Personal Edition of HelpNDoc: Easy EBook and documentation generator